শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। আজকের বিশ্ব অর্থনৈতিক সংকটের মাঝেও দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রেখেছেন। বিশ্বের অনেক প্রভাবশালী দেশ জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছেন। কোভিড উত্তর রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধকালীন চরম বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার মাঝেও বাংলাদেশ অনেকের চেয়ে ভালো অবস্থানে আছে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ভিশনারী, ডায়নামিক ও দূরদর্শী নেতৃত্বের জন্যে। যে কারণে আজ বিশ্ব ব্যাংক, আইএমএফসহ বিশ্ব নেতৃবৃন্দ জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

শনিবার (৮ জুলাই) সকাল ১১ টায় শরীয়তপুরের নড়িয়ায় ১৫০ জন শিক্ষার্থীকে ট্যাব বিতরণ, ধর্মীয় সহ ৩৯টি প্রতিষ্ঠানে ২০ লাখ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ এবং বঙ্গবন্ধুর জুলিওকুরি শান্তি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বৃক্ষরোপন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা আজ শুধু আমাদের নয় খোদ বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সোনাকের কাছেও বড় প্রেরণার নাম। বিপদে আপদে আওয়ামীলীগ সব সময় মানুষের পাশে ছিল, আছে এবং থাকবে। তাই এই দেশের জনগণ আবারও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করবে। এই লক্ষ্যে তিনি সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

এনামুল হক শামীম বলেন, ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করা এবং ডিজিটাল রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছিলেন জননেত্রী হাসিনা। ২০২১ সালের মধ্যে তা সফলভাবে বাস্তবায়ন করেছে তিনি। এই সময়ের মধ্যে ক্ষুধা-দারিদ্র দূর করে দেশের মানুষকে স্বনির্ভর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সব রকমের প্রযুক্তি ও অবকাঠামোগত সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছে। সেসব সুবিধা কাজে লাগিয়ে অর্থনৈতিক জীবন বদলে ফেলেছে বাংলাদেশের মানুষ। একইসঙ্গে ডিজিটাল সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে স্মার্ট ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।
সেই এই প্রজন্মের শিক্ষার্থী স্মার্ট নাগরিক হিসেবে গড়ে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে চলছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

উপমন্ত্রী বলেন, কারণ একটি দেশকে স্মার্ট রাষ্ট্র হিসেবে গড়তে হলে, তথ্যপ্রযুক্তিজ্ঞান সমৃদ্ধ নতুন প্রজন্ম গড়া প্রয়োজন। কারণ, আজকের এই শিক্ষার্থীরাই আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবে। তাই ছোট থেকেই ডিজিটাল প্রযুক্তি শিক্ষার মাধ্যমে মূল্যবোধসম্পন্ন, মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের প্রশ্নে আপোষহীন, সৃষ্টিশীল ও দেশপ্রমিক নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠলেই অর্জিত হবে স্মার্ট বাংলাদেশ।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছেন বলেই বাংলাদেশ সব দিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় নড়িয়া-সখিপুরও এগিয়ে যাচ্ছে। এই জনপদের ভাঙন কবলিত পদ্মা পাড় পর্যটন কেন্দ্র রুপান্তরিত হয়েছে। জয়বাংলা এভিনিউ ও সোনার বাংলা এভিনিউ হয়েছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ, অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এই অঞ্চলের মানুষ কখনো বঙ্গবন্ধু, জননেত্রী শেখ হাসিনা ও নৌকার প্রশ্নে আপোস করে নাই, আগামীতে করবে না।

নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরৎ চন্দ্র বৈদ্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, নড়িয়া পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মাল, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বেপারী, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাজমা মোস্তফা প্রমূখ।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন