মো. নাহিদুল ইসলাম ফাহিম, রাজবাড়ীঃ

আগে শিক্ষা পরে বিয়ে, আঠারো/একুশ পার হয়ে- প্রতিপাদ্যে রাজবাড়ীতে স্কুল পর্যায়ে বাল্যবিবাহ বিরোধী সমাবেশ ও শপথ পাঠ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬জুন) সকালে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের বাল্যবিবাহ নিরোধ ঘণ্টা উদ্ভাবনীর উদ্যোগে রাজবাড়ী মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে রাজবাড়ীর ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আজমীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান, সাবেক পৌর মেয়র ও ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমরেশ চন্দ্র বিশ্বাস, ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইকবাল হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাজবাড়ী মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রোগ্রাম অফিসার তহমিদা খানম।

এ সময় বক্তারা বলেন, আজকের শিক্ষার্থীরাই আগামীর বিভিন্ন কর্মকর্তা, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী হবে এবং এ স্বপ্ন নিয়েই তারা লেখাপড়া করছে। অল্প বা অনুপযুক্ত বয়সে বিয়ে হয়ে গেলে পরিবারের দায়িত্ব গ্রহণ করে অধকাংশ ক্ষেত্রেই শিক্ষার্থীরা এই স্বপ্ন পূরণ করতে পারে না। তাছাড়া ১৮ বছরের কম বয়সী ছেলেমেয়েদের সন্তান জন্মদানের ক্ষেত্রেও রয়েছে ব্যাপক ঝুকি। তাই ১৮ বা ২১ বছর বয়সের আগেই বিয়ের ব্যাপারে সরকারি টোল ফ্রি নাম্বার ৩৩৩ অথবা ৯৯৯ এ যোগাযোগ করলে প্রশাসন এ বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

শিক্ষার্থীরা বলেন, অর্থনৈতিকভাবে সাবলম্বী না হলে পরিবারে এবং সমাজে মতামতের গুরুত্ব থাকে না। তাই সকলেরই উচিত বাল্যবিবাহ বা যে কোনো কারণে পড়াশোনা না থামিয়ে শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জন করে অর্থ উপার্জনের মাধ্যমে পরিবারে ও সমাজে নিজের অবস্থান তৈরি করে বিয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া।

শেষে জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাল্যবিবাহ বিরোধী শপথ পাঠ করান।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন