রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ
রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে চাঁদার টাকার জন্য এক বাড়ীতে প্রবেশ করে ২ জনকে মারধর করার সময় গণপিটুনীর শিকার হয়েছে ৮ মামলার পলাতক আসামী আল আমিন মোল্লা (৩০)।
আল আমিন মোল্লা বালিয়াকান্দি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের বারমল্লিকা গ্রামের আবুল মোল্লার ছেলে। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক আব্দুর রাজ্জাক ও তার ভাই ইসহাককে আহত অবস্থায় বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সোমবার দিবাগত সন্ধ্যায় সোয়া ৭ টার দিকে বালিয়াকান্দি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের বারমল্লিকা কৃষ্ণপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।
আহত আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমাকে গত ১২ জুন বিকেল ৩ টার দিকে বাড়ী থেকে আল আমিন মোল্লার নেতৃত্বে ১০ থেকে ১২ জন তুলে নিয়ে বারমল্লিকা একটি মেহগনি বাগানের মধ্যে আটকে রাখে। সেখানে মারধর করে ৩২ হাজার টাকা দাবী করে। এসময় আমার কাছে থাকা নগদ ৪ হাজার ৪ শত টাকা কেড়ে নেয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে আরও ২০ হাজার টাকা দাবী করে তারা।
গত সোমবার তাকে ফোন করে বাড়ীতে টাকা নিতে আসতে বললে আল আমিন মোল্লা, তার ভাই আরিফ, আলমগীর, সহযোগী মোস্তফা, লিটন, ফরহাদ, ইলিয়াছসহ আরো ৫ থেকে ৬ জন আমার বাড়ীতে প্রবেশ করে। টাকার জন্য ইসহাকের ঘাড়ে চাপাতি ধরে রাখে। টাকা দিতে দেরী হওয়ায় ইসহাককে কুপিয়ে জখম করে। আমাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে সবাই পালিয়ে গেলেও আল আমিন মোল্লা জনতার  হাতে ধরা পড়ে। লোকজন তাকে গণপিটুনী দেয়। ডিবি পুলিশ ও থানা পুলিশকে খবর দেওয়া হলে তারা এসে আহত দুই ভাই ও আল আমিনকে উদ্ধার করে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করেন।
রাজবাড়ী জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান খান বলেন, মোটরসাইকেল চুরির মামলাসহ ৮ মামলার আসামী  আল আমিন মোল্লার গণপিটুনীর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আটক করে বালিয়াকান্দি থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে মঙ্গলবার মামলা দায়ের করেছেন।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন