মোঃ ফিরোজ আহমেদ, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি :

আগামী ২৯ মে নওগাঁর আত্রাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। দিন যতই ঘনিয়ে আসছে প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে ভোটের উত্তাপ ততোই বৃদ্ধি পাচ্ছে। ১ লাখ ৭০ হাজার ১’শ ৫২ জন ভোটারের মন জয় করতে ৮ চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৩ পুরুষ ৪ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী দিন রাত সমান করে ভোটারের দারে দারে ঘুরছেন। দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি।

৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ৭ জনই নতুন মুখ। ইতিপূর্বে কেউ ওই চেয়ারে বসতে পারেন নি তারা। ভোটারদের ধারনা সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে এক জনের দখলে থাকা চেয়ার অন্যের দখলে যাচ্ছে।

তথ্য অনুসন্ধানে ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, ৮ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে রয়েছেন উপজেলা যুবদল আহবায়ক ও বিএনপির বহিস্কৃত সদস্য একরামুল বারী রঞ্জু। বিএনপির পক্ষ থেকে ভোট বর্জনের কর্মসূচি পালন করা হলেও ভোটারের মধ্যে তার কোন প্রভাব লক্ষ করা যাচ্ছে না। বরং হেলিকপ্টার প্রতীকের প্রতি তাদের আকৃষ্ট করছে বলে বিএনপি ঘরনার ভোটাররা জানান।

জোড়াফুল প্রতীক নিয়ে উপজেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান পলাশ ভোটের মাঠে রয়েছেন। পল্লী বিদ্যুতের দুর্নাম তার ঘারে থাকলেও দুই বার চেয়ারম্যান পদে দাঁড়িয়ে পরাজয়ের দরুন সিমপ্যাথি ভোট এবং বর্তমান এমপির নির্বাচন করা ৫০ শতাংশ নেতা-কর্মী তার পক্ষে কাজ করায় ওই ভোটগুলো তার দখলে আছে বলে ভোটাররা মনে করছেন।

কৈ মাছ প্রতীক নিয়ে উপজেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি এবাদুর রহমান প্রামানিক ভোটের মাঠে রয়েছেন। তিনি দীর্ঘ ১৫ বছর চেয়ারম্যানের চেয়ারে থাকায় তাঁর বিরুদ্ধে সালিসের নামে উভয় পক্ষের কাছ থেকে টাকা নেওয়া, মুখের ভাসা বুঝতে না পারা, জমি জবর-দখল, উন্নয়ন প্রকল্প দেওয়ার নামে উৎকোচ গ্রহণ, অস্বাভাবিক হারে তার সম্পদ বৃদ্ধির অভিযোগ থাকলেও মসজিদ-মন্দির এবং ভোটারদের মাঝে অনুদানের মাধ্যমে ভোটের মাঠ উৎফুল্ল করে রেখেছেন তিনি।

মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে উপজেলা আ’লীগ সাধারন সম্পাদক আক্কাছ আলী প্রামানিক ভোটের মাঠে রয়েছেন। দলীয় নেতা-কর্মী তার পক্ষে কাজ করায় তার সুফল তিনি ভোগ করবেন বলে ভোটারেরা মনে করছেন কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে দুই বারের বিজয়ী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম ভোটের মাঠে রয়েছেন। তিনি নারীদের জাগরন ও অধিকার বিষয়ে সচেতন করছেন।

আনারস প্রতীক নিয়ে সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন বাবর ভোটের মাঠে রয়েছেন। সাবেক উপজেলা আ’লীগ সভাপতি প্রয়াত সিদ্দিকুর রহমান রাজার ছোট ভাই হওয়ায় তিনি কিছুটা সুফল ভোগ করবেন বলে জানাগেছে।

ঘোড়া প্রতীক নিয়ে সনৎ কুমার প্রামানিক ভোটের মাঠে রয়েছেন। অনেকের ধারনা জাতিগত ভাবে তিনি কিছুটা সুফল ভোগ করবেন। তবে এবিষয়ে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। এছাড়া দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে মাহাতাব উদ্দিন ভোটের মাঠে রয়েছেন।

একইসাথে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে তালা প্রতীক নিয়ে উপজেলা আ’লীগ যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আফছার আলী প্রামানিক, চশমা প্রতীক নিয়ে উপজেলা আ’লীগ প্রচার সম্পাদক হাফিজুল শেখ এবং মাইক প্রতীক নিয়ে যুবদল বহিস্কৃত নেতা আব্দুর রাজ্জাক ভোটের মাঠে রয়েছেন। তবে ভোটারদের ধারনা চশমা ও তালা প্রতীকের মধ্যে লড়াই হবে।

সেইসাথে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে কলস প্রতীক নিয়ে ফেরদৌসী ইয়াসমিন চেীধুরী, হাঁস প্রতীক নিয়ে শামছুন নাহার রনি, সেলাই মেশিন নিয়ে রওশন আরা পারভীন এবং ফুটবল প্রতীক নিয়ে মিতু বানু ভোটের মাঠে রয়েছেন। তবে ভোটারদের ধারনা কলস ও ফুটবল প্রতীকের মধ্যে এক জন বিজয়ের মালা পড়বেন।

এদিকে কেহ যেনো আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারেন সেজন্য ৬৭ ভোট কেন্দ্রের সবগুলোতে পুলিশ প্রশাসন সর্বদা নজর রাখছেন বলে আত্রাই থানা অফিনার ইনচার্জ (ওসি) জহুরুল ইসলাম জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা সঞ্চিতা বিশ্বাস বলেন, ভোটাররা যাতে উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে নিরাপদে বাড়ী ফিরতে পারেন সেব্যাপারে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন