তানোর থেকে: জাকির হোসেন- টুটুলঃ

রাজশাহীর তানোর পজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে, জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস-২০২৩ ইং উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ (শুক্রবার) ৬- অক্টোবর বেলা ১১-০০ মিনিটে তানোর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে, তানোর পজেলা পরিষদ মিলনায়তনে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বিল্লাল হোসেন এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা (ভূমি কর্মকর্তা) আবিদা সিফাত এর সঞ্চলনায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস-২০২৩ ইং উদযাপন উপলক্ষে রেলি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, কলমা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খাদেমুনন্নবী চৌধুরী (বাবু) কামারগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বী ফরহাদ, চাঁন্দুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি পরিষদ চেয়ারম্যান, মজিবর রহমান, পাচন্দর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি পরিষদ চেয়ারম্যান, আব্দুল মতিন, বাধাইড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান, সরনজাই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন, তানোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র আরব আলী কমিশনার, মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, মোহাম্মদ আলী কমিশনার প্রমুখ।

তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বিল্লাল হোসেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আর্কষণ করে বলেন; উপজেলা প্রশাসন কতৃক প্রদেয় নাগরিক সেবাসমূহ যথাক্রমে, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন নিশ্চিত করণ ও সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নাগরিকদের বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে সরেজমিনে পরিশর্দনসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাচাই এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ অভিযোগকারীদের লিখিত/মৌখিক বক্তব্য গ্রহণপূর্বক সমাধান প্রদান, দারিদ্র এবং ভূমিহীনদের জন্য সরকারের পুনর্বাসন কর্মসূচি যেমন, আশ্রায়ণ, আবাসন, আদর্শ গ্রাম, গুচ্ছগ্রাম এবং জলবায়ু দুর্গত মানুষের পুনর্বাসন প্রকল্পের বাস্তবায়ন ও তদারকিসহ নকল ও দুর্নীতিমুক্ত পরিবেশে পাবলিক পরিক্ষাসমূহ অনুষ্ঠান তত্বাবধান সমন্বয়ে পরিক্ষা পরিচালনা করবেন।
এছাড়াও নিয়মিত দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে বাজার মনিটরিং, জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের আবেদন অনুমোদন ও নাগরিকদের স্বাস্থ্যসেবা, ভোক্তা অধিকার, বাল্যবিবাহ রোধ এবং মাদকমুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করবেন।
এছাড়াও, হাট-বাজার ফেরিঘাট, জলমহালের ইজারা কার্যক্রম পরিচালনা, উপজেলার রাস্তা-ঘাটসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনা, ভূমিহীনদের খাসজমি বন্দোবস্ত দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন।
দারিদ্র ও বেকারত্ব দূরীকরণে বিধবাভাতা, বয়স্কভাতা, প্রতিবন্ধীভাতা ইত্যাদি সেবা প্রদান ও বেকার যুবক-যুবতিদের কর্মক্ষম করার লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও ঋণ প্রদান করা ও শিক্ষার মান উন্নয়নে স্কুল-কলেজ পরিদর্শন, তদারকিকরণ এবং ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদানসহ, ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করবেন।

এছাড়াও বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনায় প্রয়োজনীয় প্রত্যয়নসমূহ প্রদান এবং মসজিদ / মন্দিরসহ বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ের উন্নয়নমূলক কাজে অনুদান প্রদানে উপজেলা প্রশাসনের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন