মোহাম্মদ আলী উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি:

এগারো পেরিয়ে বারোতে পদার্পণ,সবার সাথে এশিয়ান টেলিভিশন’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে বগুড়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে এশিয়ান টিভির ১১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। আজ সকালে বগুড়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে কেক কাটার মধ্যদিয়ে এশিয়ান টিভির প্রতিষ্টাবার্ষিকী পালিত হয়। এশিয়ান টিভি বগুড়ার স্টাফ রিপোর্টার শামসুল আলম লিটন ও জেলা প্রতিনিধি রাজু আহমেদ এর আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল শরাফত ইসলাম, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন, দৈনিক করতোয়ার বার্তা সম্পাদক প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন মিন্টু, বগুড়া প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও নিউজ টোয়েন্টিফোর আব্দুস সালাম বাবু, বগুড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আরিফ রেহমান ও বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জেএম রউফ।এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাভিশনের বগুড়া প্রতিনিধি আব্দুর রহিম বগরা, সাংবাদিক রেজাউল হক বাবু, দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ ফটোগ্রাফার শফিউল আযম কমল, দৈনিক যুগান্তরের বগুড়া ব্যুরো প্রধান নাজমুল হুদা নাসিম, দৈনিক কালের কন্ঠের স্টাফ ফটোগ্রাফার আবুল কালাম আজাদ ঠান্ডা, সাংবাদিক যাহেদুর রহমান যাদু, যমুনা টিভির বগুড়া প্রতিনিধি মেহেরুল সুজন, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর বগুড়া প্রতিনিধি ফরহাদুজ্জামান শাহী, দৈনিক ভোরের দর্পনের স্টাফ রিপোর্টার ইলিয়াস হোসেন, বগুড়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য তানসেন আলম, বগুড়া ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম ও বগুড়া ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মমিনুর রশিদ শাহীন, প্রবীর মোহন্ত, দেশ রূপান্তরের জেলা প্রতিনিধি সাখাওয়াত হোসেন জনি, এনটিভির ক্যামেরা পার্সন এমদাদ হোসেন, এটিএন নিউজের ক্যামেরা পার্সন শফিকুল ইসলাম শফিক, নিউজ-২৪ এর ক্যামেরা পার্সন আব্দুর রাজ্জাক, দৈনিক চাঁদনী বাজার পত্রিকার ফটো সাংবাদিক সাবু ইসলাম, সাংবাদিক আবু সাঈদ হেলাল, দৈনিক বগুড়ার ফটো সাংবাদিক গুলজার হোসেন মিঠু, ফটো সাংবাদিক কামরুল হাসান কমল, নাগরিক টিভির ক্যামেরা পার্সন আব্দুল বারী মামুন, দৌলতুজ্জামান দৌলত, সাংবাদিক খালিদ, সানাউল হক শুভ প্রমুখ।আলোচনা সভা ও কেক কাটার পর বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভা যাত্রাটি শহরের ষ্টেশন রোড ঘুরে প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিক, সমাজকর্মী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অংশ গ্রহন করেন।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন