মোঃ ইসমাঈল হোসেন, বগুড়া সদর প্রতিনিধিঃ

বগুড়ায় অভিযান চালিয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগে দুইটি অবৈধ ক্লিনিক ও একটি ব্লাড ব্যাংকে সিলগালা করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে এ সকল প্রতিষ্ঠানের মালিকদের মোট সাড়ে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
ররিবার বিকাল চারটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত চলা এই অভিযান সিভিল সার্জন বগুড়ার কার্যালয় ও ভোক্তা অধিকার যৌথভাবে পরিচালনা করেন। এতে নেতৃত্ব দেন বগুড়া জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ইফতেখারুল আলম রিজভী এবং বগুড়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. সাজ্জাদ উল হক। এসময় র‍্যাব সদস্যরা অভিযানে সহযোগিতা করেন।

ইফতেখারুল আলম রিজভী বলেন, বিকাল চারটায় প্রথমে ঠনঠনিয়ার সেবা ব্লাড ব্যাংকে অভিযান পরিচালনা করা হয়। তাদের ২০২০ সালের পর লাইসেন্স নবায়ন নেই। ফ্রিজে মেয়াদের তারিখ নেই এমন দশ ব্যাগ রক্ত পাওয়া যায়। এছাড়া তাদের ব্যাংকের পরিবেশও অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা। এসব অভিযোগে ওই ব্লাড ব্যাংক সিলগালা এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অপর এক অভিযানে শহরের কানুছগাড়ী এলাকায় নিউ শতদল ক্লিনিকে দেখা যায়, তারা ২০২২ সালে শুধু নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেছিল। এছাড়া তাদের আর কোন ধরণের কাগজপত্র নেই। এসব অভিযোগে তাদের এক লাখ টাকা জরিমানা ও প্রতিষ্ঠান সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, সন্ধ্যায় শহরের মা ফাতেমা ক্লিনিকে অভিযান পরিচালনা করে দেখা যায়, তাদের কোন ধরণের বৈধ কাগজপত্র নেই। তা সত্ত্বেও তারা সেখানে দুইজন জটিল রোগীকে ভর্তি করিয়েছে। প্রথমে ওই দুই রোগীকে সরকারি মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। পরে তাদের দুই লাখ টাকা জরিমানা ও প্রতিষ্ঠান সিলগালা করা হয়।

বগুড়ার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শফিউল আজম বলেন, ‘তালিকা করে অবৈধ ও অনিবন্ধিত ক্লিনিক ও ডায়গনস্টি সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। যাদের কাগজপত্র নেই তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এই অভিযান চলমান থাকবে।