আতিকুর, ঝিনাইগাতী(শেরপুর) প্রতিনিধি:

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের উত্তর গান্ধিগাও গ্রামে দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া আদিবাসী এক কন্যা শিশুকে ধর্ষণের দায়ে ধর্ষক কিশোর ফাহিম (১৩)কে গ্রেপ্তার করেছে ঝিনাইগাতী থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২৮মে) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষক কিশোর একি ইউনিয়নের হালচাটি গ্রামের এরশাদ আলীর ছেলে।

ভিকটিমের পরিবার ও থানার সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটি বাড়ীর পাশে খেলা করছিল। ফাহিম তাকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে গজনী অবকাশ রোডের লেবার মোড় নামক এলাকার গভীর জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে ছেড়ে দেয়। পরে ধর্ষিতা শিশুটি বাড়ীতে গিয়ে তার দাদীকে বিষয়টি বলার পর ধর্ষিতার দাদী থানায় খবর দেয়।

খবর পেয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এসআই তনু নন্দন রুরামকে ঘটনাস্থলে পাঠায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ধর্ষক ফাহিম সটকে পড়ে। পরে পুলিশ কৌশল করে ফাহিমের বাবার সহযোগীতায় ফাহিমকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

পরে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণসহ আলামত সংগ্রহ করে। শিশুটির বাবা-মা ঢাকায় অবস্থান করায় তার দাদী বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণের দায়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পাওয়া মাত্রই ধর্ষক ফাহিমকে গ্রেপ্তার, আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। মামলাটি প্রক্রীয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন