মোঃ সোহেল রানা ( বরগুনা )ঃ

সোনার ও স্মাট বাংলা গড়ার প্রত্যয় জাতীয় শুদ্ধাচার পুস্কার পেয়েছেন টাঙ্গাইলের মধুপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীমা ইয়াসীন।
শুদ্ধাচার চর্চায় উৎসাহ প্রদান ও সরকারি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে টাঙ্গাইল জেলার উপজেলা পর্যায়ের কার্যালয়সমূহের প্রধানদের মধ্য হতে সরকারি কাজে সেবা প্রদান ও কর্মদক্ষতার স্বীকৃতিস্বরুপ ইউএনও শামীমা ইয়াসীন শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তার এ সন্মাননা পেয়েছেন।

টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে রোববার সকাল এগারটায় জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার হিসেবে ইউএনও’র হাতে সন্মাননা ক্রেস্ট, সনদ ও মূল বেতনের সমপরিমান অর্থের চেক তুলে দেন জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপপরিচালক স্থানীয় সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকগন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ ও জেলার সকল নির্বাহী অফিসারগণ।

মধুপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে শামীমা ইয়াসীন যোগদানের পর সততা ও নৈতিকতার সাথে উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে কর্তব্যনিষ্ঠা ও নিরলসভাবে কাজ করে আসছেন। তিনি মানবিক ও জনবান্ধব ইউএনও হিসেবে মধুপুরের সকল পেশার মানুষের কাছে পরিচিতি পেয়েছেন।

কর্মজীবনের সর্বত্রই অসামান্য অবদান ও সততার উজ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছেন তিনি। বর্তমান কর্মস্থল উপজেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, শিক্ষা, ক্রীড়া, মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু কর্ণার-পাঠাগার ও মেধা বিকাশে ব্যতিক্রমী বেশ কিছু কাজ করে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সর্বমহলে প্রশংশিত হয়েছেন।
উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা নির্বাচিত হওয়ায় ও পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে শামীমা ইয়াসীন বলেন, সততা ও নিষ্ঠার সাথে সবসময় কাজ করার চেষ্টা করছি। কাজের অবদানের জন্য এ স্বীকৃতি আনন্দের। আমি বিশ্বাস করি, সকলের সহয়োগীতায় স্মাট, উন্নত ও সমৃদ্ধ মধুপুর উপজেলা প্রতিষ্ঠায় সক্ষম হবো।

আপনি যে খবরগুলো মিস করেছেন