মোঃ ফিরোজ আহমেদ, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

সার্বক্ষণিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি আত্রাই থানা চত্বরে ওসি তারেকুর রহমান সরকারের উদ্যোগে পরিত্যক্ত জমিতে গড়ে তোলা হয়েছে বিষমুক্ত সবজি, ফুল- ফলের বাগান। সেইসাথে থানার পুকুরে চাষ করা হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির ছোট-বড় মাছ। থানা চত্বরের সবুজ বেষ্টনী সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। বাড়ির চারপাশে পরিত্যক্ত জমি ফেলে না রেখে সবজি ফুল-ফলের বাগান তৈরি করে সহজেই বিষমুক্ত সবজির চাহিদা পূরণ সম্ভব বলে অনেকে মনে করছেন।

থানা সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ‘দেশের এক খন্ড জমিও যেন অনাবাদী পড়ে না থাকে। ফসল উৎপাদনে বেশি নজর দিতে হবে। সেই নির্দেশনার প্রেক্ষিতে থানা চত্বরে গড়ে তোলা হয়েছে সমন্বিত সবজি বাগান।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, একসময় থানা চত্বরের কিছু জায়গা জঙ্গল আর ময়লা আবর্জনায় ভরে থাকতো। আজ সেই আবর্জনা পরিস্কার করে সেখানে গড়ে তোলা হয়েছে বিষমুক্ত সবজি ফুল-ফলের বাগান। থানার প্রবেশদ্বারের ডান দিকে তাকাতেই নজরে পড়ল মসজিদ সংলগ্ন স্থানে ফুলের ছোট্ট বাগান। সেখানে বাম দিকে তাকাতেই চোখে পড়ল সবজি বাগান। একটু সামনে গিয়ে মূল ভবনে প্রবেশদ্বারের বাম দিকে সুসজ্জিত ফুলের বাগান দেখে চোখ জুড়িয়ে আসছিল। বৃষ্টি কম থাকায় পুকুরের পানি কম থাকলেও একটু খাবার দিতেই হরেক রকম মাছ এসে পাক খাওয়া দেখে খুব মজা লাগছিলো।

আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার বলেন, মানবিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ‘এক ইঞ্চি জমিও যেন পরিত্যক্ত পড়ে না থাকে’। সেই নির্দেশনা মোতাবেক এই থানায় যোগদানের পর থেকে পরিত্যক্ত সকল জমিগুলোতে সবজি, ফুল-ফল উৎপাদনের উদ্যোগ গ্রহণ করি। বর্তমানে বাগানে বেগুন, মরিচ, ধনিয়া, পুঁইশাক, লালশাক, সবুজশাক, ঢেড়স, পেঁপে, সজনে, লাউসহ বিভিন্ন সবজির গাছ শোভা পাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমরা যারা থানায় কর্মরত আছি তারা সবাই সাধ্যমতো বাগানে সময় দেওয়ার চেষ্টা করি। ফলে বাগান থেকে উৎপাদিত বিষমুক্ত সবজি দিয়ে থানায় কর্মরতরা অনেকাংশে সবজির চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হচ্ছি।